৮ বিভাগে বিকেএসপি, মিনি স্টেডিয়াম হবে প্রতি উপজেলায়

Bortoman Protidin

৫ দিন আগে শুক্রবার, এপ্রিল ১২, ২০২৪


#

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, খেলাধুলার উৎকর্ষতার জন্য দেশের আটটি বিভাগে বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (বিকেএসপি) এবং প্রতিটি উপজেলায় মিনি স্টেডিয়াম গড়ে তোলা হবে।

(৭ ফেব্রুয়ারি) বুধবার  রাজশাহীতে অনুষ্ঠিত ৫২তম শীতকালীন জাতীয় ক্রীড়া প্রতিযোগিতা-২০২৪ এর চূড়ান্ত-পর্বের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী।

এসময় তিনি আরো বলেন, খেলাধুলাকে আরো বেশি সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। আমাদের ছেলে-মেয়েদের আরো বেশি উন্নত প্রশিক্ষণের দরকার। কাজেই প্রশিক্ষক তৈরি করা, এটা একান্তভাবে দরকার। আমরা প্রত্যেকটা বিভাগে একটা করে ক্রীড়া প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলব, যেটা বিকেএসপি। আটটা বিভাগে আটটা হবে। যেখানে আমাদের ছেলে-মেয়েরা ছোটবেলা থেকেই খেলাধুলায় আরো পারদর্শী হতে পারবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আজকেও আমাদের একটা ভালো খবর আছে যে, আমরা ভুটানকে ৪-০ গোলে হারিয়েছি। ফুটবলে আমাদের মেয়েরা খুবই ভালো করছে। স্পোর্টসের দিক থেকে মেয়েরা যেন একটু বেশিই এগিয়ে যাচ্ছে মনে হচ্ছে। ছেলেরাও পিছিয়ে নেই। তবে ছেলেরা আরো এগিয়ে যাবে। এখন হয়ত অংশগ্রহণ কম হতে পারে, কিন্তু ভবিষ্যতে কম হবে না। প্রত্যেক খেলাধুলায় ছেলে-মেয়েদের যদি আমরা ছোটবেলা থেকেই ভালো ট্রেইনিংয়ের ব্যবস্থা করতে পারি, তাহলে তারা তাদের দক্ষতার পরিচয় দিতে পারবে। 

শেখ হাসিনা বলেন, দেশীয় খেলাকে আরো গুরুত্ব দিতে বলব। আমরা প্রত্যেকটা উপজেলা পর্যন্ত আলাদা খেলার মাঠ, অর্থাৎ মিনি স্টেডিয়াম তৈরি করছি। সেটা আমাদের বেশ কয়েকটা হয়ে গেছে, আরো বাকি আছে। এটা তৈরি করার উদ্দেশ্য হলো সারাবছরই আমাদের ছেলে-মেয়েরা যেন কোনো না কোনো খেলাধুলার সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারে।

আমাদের ক্রিকেট স্টেডিয়াম আছে, ফুটবল স্টেডিয়াম আছে, সেগুলো আলাদা। কিন্তু উপজেলা পর্যায় পর্যন্ত আমি মিনি স্টেডিয়াম করেছি একটা লক্ষ্য নিয়েই, সেটা হলো- বিভিন্ন ধরনের স্পোর্টস সেখানে হবে, খেলাধুলা হবে, প্রতিযোগিতা হবে, আন্তঃস্কুল প্রতিযোগিতা হবে। যা আমাদের ছেলে-মেয়েদের আরও সুযোগ করে দেবে, মানে- নিজের দেশে অথবা আন্তঃস্কুল, আন্তঃকলেজ, আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় পাশাপাশি আন্তঃজেলা, উপজেলা, পর্যায় পর্যন্ত এই প্রতিযোগিতার ব্যবস্থা করতে হবে। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি মনে করি যে, লেখাপড়ার সঙ্গে সঙ্গে খেলাধুলা, শরীরচর্চা এবং সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা এগুলো আয়োজন করা থাকলে আমাদের ছেলে-মেয়েরা মন-মানসিকতার দিক থেকে আরো উদার হবে, উন্নত হবে, সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হবে। সেভাবেই গড়ে তুলতে হবে। আমরা বিকেএসপি কয়েকটি বিভাগে করেছি, পর্যায়ক্রমে সাত-আটটি বিভাগেই হবে, যেখানে ভালো প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা থাকবে এবং খেলাধুলা করতে পারবে ছেলে-মেয়েরা, সেটাই চাই। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, হাডুডু থেকে শুরু করে সব ধরনের দেশীয় খেলা শুরু করতে হবে। যাতে এগুলো হারিয়ে না যায়। আমি মনে করি, পড়ালেখার পাশাপাশি খেলাধুলা, শরীরচর্চা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করলে আমাদের ছেলেমেয়েরা মানসিক দিক থেকে আরো উন্নত, উদার ও সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হবে। আমাদের ছেলেমেয়েরা অনেক মেধাবী। একটু সুযোগ করে দিলে তারা ভালো কিছু করতে সক্ষম।

global fast coder
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  
#

এখনও জানা যায়নি দুর্ঘটনার কারণ, হতাহত আরও বাড়ার আশঙ্কা

#

বাংলাদেশে সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক জোরদার করতে চায় চীন

#

বিশ্বকাপ ফাইনাল অজিদের হেক্সা নাকি ভারতের তিন?

#

চিকিৎসা গবেষণা বাড়াতে বায়োব্যাংক প্রতিষ্ঠার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

#

বিএনপির অপচেষ্টা এখনো অব্যাহত : ওবায়দুল কাদের

#

কয়েকদিনের মধ্যেই পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি দেবে সরকার

#

‘প্রান্তিক মানুষের কাছে চিকিৎসা না পৌঁছালে চাপ কমবে না হাসপাতালে’

#

পাহাড়ের পরিস্থিতি ‘কন্ট্রোলে’ চলে আসবে, আশা সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের

#

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন জবি উপাচার্য

#

অস্তিত্বের প্রশ্নে এখন বেসামাল হয়ে উঠেছে সরকার

সর্বশেষ

Link copied